বাংলাদেশ হেরে গেলেও কোটি ভক্তের হৃদয় কেড়েছে যে সিদ্ধান্ত

0 321

অনলাইন ডেস্ক:

বাংলাদেশ- নিউজিল্যান্ড দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচের ৪৬তম ওভারের চতুর্থ বল করার আগে থেমে যান হাসান মাহমুদ। নন স্ট্রাইক প্রান্তে থাকা সৌধির স্টাম্প ভাঙেন তিনি। এরপর আবেদনও করেন। অন ফিল্ড আম্পায়ার এরাসমাস যান টেলিভিশন আম্পায়ারের কাছে। রিপ্লেতে দেখা যায়, স্টাম্প ভাঙার সময় ক্রিজের বাইরেই ছিলেন সৌধি।

‘মানকাডিং’ আউট হওয়ার পর হাসতে হাসতে মাঠ ছাড়তে থাকেন সোধি। এরপরই দেখা যায়, সোধি ফিরে আসছেন। লিটন দাস আম্পায়ারের সঙ্গে কথা বলেন। এরপরই আম্পায়ার সোধিকে ফিরে আসার সংকেত দেন। মূলত, আবেদন তুলে নেন লিটন। এ সব ক্ষেত্রে আবেদন তুলে নেয়ার সুযোগ রয়েছে অধিনায়কের। মিরপুরের দর্শকরা করতালি দিয়ে স্বাগত জানান সৌধিকে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ইতোমধ্যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে। নেটিজেনরা প্রশংসায় ভাসাচ্ছেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক লিটন দাস ও বোলার হাসান মাহমুদকে।

ভিডিওটি দেখে ‘এসএইচ সাকিব’ নামে এক ক্রিকেটভক্ত কমেন্টে লিখেন, ‘মানকাড আউট করার পর খুবই খারাপ লাগছিল। কিন্তু ফিরিয়ে আনাতে অনেক বেশি ভালো লেগেছে। সবচেয়ে বেশি ভালো লেগেছে বেটার কে ফিরিয়ে আনার পর দর্শকদের উল্লাসিত চিৎকার।’

সোহান খান নামে এক ক্রিকেটভক্ত লিখেন, ‘ধন্যবাদ লিটন দাস তোমাকে, আমরা আশা করি এরকম ভুল আর কেউ করবে না। টিমের মধ্যে আপনার ডিসিশন টা আমার কাছে অনেক ভালো লাগছে। আপনার কাছে অনেক কৃতজ্ঞতা রইল সামনে আরো ভালো করবেন, আর এই ছোট ছোট বিষয়গুলো মাথায় রাখবেন যদিও এটা ছোট বিষয় ছিল কিন্তু এটা সময় বেঁধে অনেক বড় হতে পারতো সেটা আপনি হতে দেননি। ধন্যবাদ লিটন দাস আপনাকে আবারো ধন্যবাদ।’

এদিকে ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশের এমন ভদ্রতায় মুগ্ধ হয়ে সোধি বলেন, আমার মনে হয় এটা বাংলাদেশ দারুণ ভদ্রতা দেখিয়েছে। তারা খুব খুব ভালোভাবে সামলেছে এটা। আমি সৌভাগ্যবান ছিলাম তারা আবার আমাকে ফিরিয়ে এনেছে। আমি যদি বোলার হতাম, একই ব্যাপার করতাম হয়তো।

বাংলাদেশ অধিনায়ক লিটন দাসের প্রশংসা করে সোধি বলেন, লিটন ছিল অনন্য যেভাবে সে সামলেছে সবকিছু। আমি বোলারকে জড়িয়ে ধরেছি, লিটনের সঙ্গে হাত মিলিয়েছি। আমরা সবাই ক্রিকেটকে খুব সম্মান করি। সবাই চেষ্টা করছি স্পিরিটটা অক্ষুণ্ন রাখতে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.