‘তানজিম সাকিবকে দল থেকে বাদ দেয়া হবে, আমি নিশ্চিত’

0 324

অনলাইন ডেস্ক:

কয়েকদিন আগেই এশিয়া কাপে ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে জাতীয় দলে ডেবিউ হয় পেসার তানজিম হাসান সাকিবের। আন্তর্জাতিক ম্যাচে পা রেখেই দুর্দান্ত পারফর্ম করেন তিনি। এতে সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্রিকেটপ্রেমী এবং ভক্ত-শুভাকাঙ্ক্ষীদের প্রশংসার জোয়ারে ভাসতে থাকেন তরুণ এই পেসার।

তানজিম সাকিব যখন তরুণ পেসার হিসেবে প্রশংসায় ভাসতে থাকেন, তখনই সামনে আসে তার পুরনো কিছু ফেসবুক পোস্ট। মাত্র কয়েকদিনের মধ্যে ভাইরাল হয়ে যায় তা। যা নিয়ে শুরু হয় নানা আলোচনা-সমালোচনা।

তানজিম সাকিবকে নিয়ে নানা প্রতিক্রিয়ার মধ্যেই এবার তার পাশে দাঁড়ালেন আরজে ও উপস্থাপক নিরব। সম্প্রতি ফেসবুক ভেরিফায়েড পেজে এক ভিডিওবার্তায় তানজিম সাকিবকে নিয়ে নিজের ব্যক্তিগত নানা মতমত তুলে ধরেন আরজে নিরব।

এ উপস্থাপক ব্যক্তিগত মতামত হিসেবে প্রশ্ন ছুড়ে দেন―সে যা বিশ্বাস করে তাই প্রচার করে। এতে সমস্যা কোথায়? আর দেশের অধিকাংশ মানুষ তানজিম সাকিবের সঙ্গে একমত।

আরজে নিরব তানজিম সাকিবের কয়েকটি ফেসবুক পোস্ট পড়ে শোনান। ধর্ষণের জন্য নারীর পোশাক দায়ী কি না, এমন একটি পোস্ট পড়েন তিনি। কয়েকটি পোস্ট পড়ার পর প্রশ্ন করেন, এখানে ভুল কী লিখেছে? নিরব বলেন, আমার মনে হয় সে যা বলেছে তার সঙ্গে দেশের অধিকাংশ মানুষই সহমত।

তানজিম সাকিব নারীর চাকরি না করা নিয়ে একটি পোস্ট দিয়েছিলেন। এ পোস্টের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে উপস্থাপক নিরব বলেন, আপনি যদি বিষয়টি পোলে দেন তাহলে পঞ্চাশ থেকে সত্তর ভাগ মানুষ তার সঙ্গে থাকবে। তবে এখন আর একজনের চাকরির টাকায় চলে না, এখন থেকে ১০ বছর আগে থেকেই একজনের টাকায় চলে না। বাংলাদেশের যে অর্থনৈতিক অবস্থা, তাতে একজনের টাকায় চলে না।

উপস্থাপক নিরব বলেন, এখন যুক্তি হচ্ছে আমার মা চাকরি করে, আমার স্ত্রী কাজ করে। আমাদের অনেক পরিবারের মেয়ে কাজ করে। আমি ধর্মীয় দৃষ্টিকোণ থেকে দেখছি না, সামাজিক দৃষ্টিকোণ থেকে দেখছি। আমি মনে করি, এখন নারীদের অর্থনৈতিকভাবে স্বচ্ছলতা জরুরি।

এদিকে তানজিম সাকিবকে নিয়ে কথা বলার সময় ষড়যন্ত্র খুঁজে পেয়েছেন বলেও জানান নিরব। বলেন, এখানে অনেক বড় একটি ষড়যন্ত্র রয়েছে। মুস্তাফিজ যখন অনেক হিট, তখন তাকে একটি কোচিংয়ে পাঠানো হলো। তারপর মুস্তাফিজ এসে আর মুস্তাফিজ নেই। তার বলে কোনো ধার নেই, আউট হয় না, কিচ্ছু নেই। মুস্তাফিজকে শেষ করা হলো।

নিরব আরও বলেন, আশরাফুল যখন তুঙ্গে তখন তারও ক্যারিয়ার ধ্বংস করা হলো। এই ছেলেগুলো যখন উঠে আসতে শুরু করে তখন আমাদের বড় ভাইয়েরা, বড় দাদারা এমন কিছু করে যাতে সে উঠে আসতে না পারে। আমি নিশ্চিত―তানজিমকে কিছুদিন পর দল থেকে বাদ দেয়া হবে।

এ উপস্থাপক বলেন, ধর্মীয় অনুভূতি সবারই আলাদা আলাদা এবং সেটা থাকা উচিত। আজ ইসলামী একটা দলও যদি রাষ্ট্রক্ষমতায় বসে তাহলে নীনিত নির্ধারণ হবে না। হওয়া উচিতও না।

Leave A Reply

Your email address will not be published.