২০১৬ সালে তুরস্কে ব্যর্থ সামরিক অভ্যুত্থানে জড়িত থাকার দায়ে ৩৩৭ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন দেশটির আদালত।

বৃহস্পতিবার (২৬ নভেম্বর) তুরস্কের সবচেয়ে বড় আদালত সিনকানে এই মামলার রায় ঘোষণা করা হয়। রায় ঘোষণাকে কেন্দ্র করে বিপুল মানুষের উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়। জোরদার করা হয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

যে ৩৩৭ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে, তাদের মধ্যে তুর্কি সেনা কর্মকর্তাও রয়েছেন। এখনো অনেক সামরিক কর্মকর্তাসহ শত শত মানুষের বিরুদ্ধে শুনানি চলছে।

২০১৬ সালের ১৫ জুলাই রাজধানী আঙ্কারার পাশের আকিনচি বিমান ঘাঁটি থেকে সরকার উৎখাতে অভ্যুত্থান ঘটানোর চেষ্টা হয়। সেসময় সামরিক অভ্যূত্থানে দেশজুড়ে বিশৃঙ্খলা ছড়িয়ে ছড়িয়ে পড়ে। তবে এরদোয়ানের নির্দেশে সাধারণ মানুষ রাস্তায় নেমে তা নস্যাৎ করে দেয়। বিপদগামী সেনা সদস্যদের মোকাবিলা করে রাজপথে অবস্থান নেয় এরদোয়ানের সমর্থকরা।

ব্যর্থ অভ্যুত্থানে জড়িত থাকার মামলায় বিমান বাহিনীর পাইলট, সেনা কর্মকর্তাসহ প্রায় পাঁচশ’ জনকে আসামি করা হয়। গণহারে গ্রেফতার চলে।

ওই অভ্যুত্থানের সঙ্গে নেপথ্য ষড়যন্ত্রকারী ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসকারী ধর্মীয় নেতা ফেতুল্লাহ গুলেন। যদিও ব্যর্থ অভ্যুত্থানে জড়িত থাকার দায় অস্বীকার করে আসছেন গুলেন। এরদোয়ানের অভিযোগ, গুলেন পালিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করছেন।

ব্যর্থ সামরিক অভ্যুত্থানে দায়ের করা মামলার বিচার শুরু হয় ২০১৭ সালের আগস্ট মাসে। আসামিদের বিরুদ্ধে প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানকে হত্যা প্রচেষ্টা এবং সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান দখলের অভিযোগ আনা হয়।

রিপ্লাই দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here