বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে এবার উৎসব ছাড়াই শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকদের হাতে বিনা মূল্যের পাঠ্যবই তুলে দিচ্ছে স্কুল কর্তৃপক্ষ।
আজ শুক্রবার (১ জানুয়ারি) সকাল থেকে ঢাকাসহ সারা দেশে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে এই বই দেওয়া হচ্ছে।
সরেজমিনে বিভিন্ন স্কুল ঘুরে দেখা গেছে, স্বাস্থ্যবিধি মেনে মাস্ক পরে বিদ্যালয়ে এসে বই নিচ্ছেন শিক্ষার্থীরা। প্রাথমিকে শিক্ষার্থীদের পক্ষে অভিভাবকেরা স্কুলে গিয়ে বই নিচ্ছেন। আর মাধ্যমিকের ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীরা স্কুল থেকে বই নিচ্ছে।

এদিকে, করোনায় বাসায় মনোযোগ সহকারে পড়াশোনার জন্য শিক্ষার্থীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার। রাজধানীর মিরপুরের মনিপুর এলাকায় অবস্থিত মনিপুর উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের মূল বালক শাখায় আজ শুক্রবার বিনামূল্যে পাঠ্যপুস্তক বিতরণকালে এ আহ্বান জানান শিল্প প্রতিমন্ত্রী।

শিল্প প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘করোনা সত্ত্বেও ছাত্রছাত্রীদের লেখাপড়া যাতে বাধাগ্রস্ত না হয়, সে বিষয়ে সরকার সর্বোচ্চ আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করছে। এরই অংশ হিসেবে বছরের প্রথম দিনই শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন পাঠ্যপুস্তক তুলে দেওয়া হচ্ছে।’

এ সময় শিল্প প্রতিমন্ত্রী শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার পরামর্শ দিয়ে বলেন, ‘করোনা থেকে বাঁচতে বিনা প্রয়োজনে অযথা বাইরে ঘোরাঘুরি করা থেকে বিরত থাকতে হবে।’

এ সময় কলেজের অধ্যক্ষ মো. ফরহাদ হোসেন, গভর্নিং বডির সদস্য এ কে এম দেলোয়ার হোসেন ও শিক্ষকরা উপস্থিত ছিলেন।

অন্যদিকে, জেলা পর্যায়ে বিদ্যালয়গুলোতেও স্বাস্থ্যবিধি মেনে শুরু হয়েছে বই বিতরণ কার্যক্রম।

নেত্রকোনা প্রতিনিধি ভজন দাস জানিয়েছেন, নেত্রকোনায় প্রাথমিক, মাধ্যমিক, এবতেদায়ী, দাখিল, কারিগরি শিক্ষার্থীদের মাঝে সরকারিভাবে বিনামূল্যে নতুন পাঠ্যপুস্তক বিতরণ শুরু করা হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে ১২ দিনব্যাপী বই বিতরণ উপলক্ষে নেত্রকোনা সরকারি মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয় ও নেত্রকোনা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে শুক্রবার সকালে বই বিতরণ উদ্বোধন ও শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দেন সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী মো. আশরাফ আলী খান খসরু।

জেলা প্রশাসক কাজী মো. আবদুর রহমানের সভাপতিত্বে বই বিতরণের সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার (এসপি) আকবর আলী মুনসী, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. ওবায়দুল্লাহ, জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আবদুল গফুরসহ শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

এ সময় জেলা প্রশাসক জানান, জেলায় মোট ৪৭ লাখ ২৬ হাজার ৫৭৪টি বই বিতরণ করা হবে। এর মধ্যে প্রাথমিকে ১৬ লাখ ৭৫ হাজার ৮৭৪টি ও মাধ্যমিকে ৩০ লাখ ৫০ হাজার ৭০০টি বই রয়েছে।

রিপ্লাই দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here