বিচারপ্রার্থীদের ভোগান্তি কমিয়ে ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে সুপ্রিম কোর্টকে যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। আজ বুধবার প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে বিচারপতিদের একটি প্রতিনিধিদল বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি এ আহ্বান জানান।

প্রধান বিচারপতি এ সময় রাষ্ট্রপতির কাছে ‘সুপ্রিম কোর্টের বার্ষিক প্রতিবেদন ২০১৯’ পেশ করেন। সাক্ষাৎকালে প্রধান বিচারপতি বার্ষিক প্রতিবেদনের বিভিন্ন দিক সম্পর্কে রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করেন।

এ ছাড়া, প্রধান বিচারপতি সুপ্রিম কোর্টের সার্বিক কার্যক্রম বিশেষ করে করোনাকালে নিম্ন আদালতসহ বিচার বিভাগের সার্বিক কার্যক্রম সম্পর্কে রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করেন।

রাষ্ট্রপতি করোনাকালে ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে বিচার কার্যক্রম পরিচালনা করায় বিচার বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানান।

রাষ্ট্রপতি বর্তমান প্রেক্ষাপটে তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে বিচারপ্রার্থীদের ভোগান্তি কমিয়ে কীভাবে ন্যায়বিচার নিশ্চিত করা যায় সে ব্যাপারে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টকে যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, ‘করোনায় বিচার বিভাগের অনেক কর্মকর্তা-কর্মচারী আক্রান্ত হয়েছেন এবং অনেকে মারাও গেছেন। তারপরেও বিচার কার্যক্রম অব্যাহত রাখা নিঃসন্দেহে প্রশংসনীয়।’

আবদুল হামিদ বলেন, ‘আগামী বছর আমাদের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপিত হবে।’ এ প্রসঙ্গে তিনি আশা প্রকাশ করেন যে জনগণের ন্যায়বিচার নিশ্চিতকরণের মাধ্যমে বিচার বিভাগ স্বাধীনতার সুফল জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে সক্ষম হবে।

রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের সচিব সম্পদ বড়ুয়া, সামরিক সচিব মেজর জেনারেল এসএম শামিম উজ জামান, রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব মো. জয়নাল আবেদীন, সচিব (সংযুক্ত) মো. ওয়াহিদুল ইসলাম খান এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য করুন

আপনার কমেন্ট লিখুন
আপনার নাম লিখুন