একটার পর একটা অশনি সংকেত এসেই চলেছে। কোন শান্তনা নেই ট্রাম্প এর জন্য। নির্বাচনের আগেই মজার ছলে ঘোষণা করেছিলেন হেরে গেলে আমেরিকা ছাড়বেন তিনি। কারন এবার হেরে যাবেন এমনটা স্বপ্নেও ভাবেননি তিনি। মার্কিন নির্বাচনে দেশটির নীতিনির্ধারক গন একজন প্রেসিডেন্টকে পর পর দুইবার নির্বাচিত করেন। সে হিসেবে আরো চার বছরের জন্য আসার কথা ছিল ডোনাল্ড ট্রাম্প এর। কিন্তু এবার সেই নীতি ভাঙ্গতে বাধ্য হলেন তারা। কারন এর আগে ডেমোক্রেট প্রার্থী হিলারীকে নির্বাচিত না করার একটাই কারন ছিল তাদের আরেকটি নীতি, যা হচ্ছে আট বছর করে ডেমোক্রেট ও রিপাবলিকানরা দেশ পরিচালনা করার সুযোগ পাবে। সুতরাং বারাক ওবামার আট বছরের পর একই দলের হিলারীকে আবারো নির্বাচিত করা সম্ভব ছিলনা। কিন্তু হিলারীর বিপরীতে ট্রাম্পকে নির্বাচিত করে হয়তো অনেক মাশুল গুনতে হয়েছে। তাই এবার হয়তো বাধ্য হয়ে ডেমোক্রেটদের আবারো ক্ষমতায় বসাতে হয়েছে।

তাই ডোনাল্ড ট্রাম্প এর দুশ্চিন্তার এখন আর কোন শেষ নেই। তার বিরুদ্ধে রয়েছে মামলার পর মামলা। ধর্ষণ থেকে শুরু করে অনেক অনিয়মের মামলা ডোনাল্ড ট্রাম্প এর বিরুদ্ধে। এখন প্রেসিডেন্ট পদ হারানোর পর এসব মামলা আর ধামাচাপা দিয়ে রাখতে পারবেন না ট্রাম্প। তাহলে ট্রাম্প এখন আমেরিকা ছেড়ে চলে যাবেন নাকি জেলে যাবেন এটাই দেখার বিষয়। এজন্য নির্বাচনে হেরে যাবার খবর আসতে শুরু করলে ক্রমেই অসহায় হয়ে পড়ছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। কোন সমবেদনাই যেন নেই তার জন্য। তিনি হয়তো নিজেই ধারনা করেছেন কি ভাগ্য বরন করতে হবে তাকে।

মন্তব্য করুন

আপনার কমেন্ট লিখুন
আপনার নাম লিখুন