জাতিসংঘ মানবাধিকার পরিষদে ঠাঁই পেলো না সৌদি

শেয়ার করুন:


আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচ (ডব্লিউএইচও) এর আগে সৌদি আরবের বিরুদ্ধে ভয়াবহ রকম মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ তুলেছিল। তার ফল হাতেনাতেই পেলো সৌদি আরব। জাতিসংঘের মানবাধিকার পরিষদে একটি আসন পাওয়ার জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করেও শেষ পর্যন্ত ব্যর্থ হয়েছে সৌদি আরব।
পরিষদের সদস্য হওয়ার ভোটাভুটিতে সৌদি আরবের বিপক্ষে অবস্থান নিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছিল ডব্লিউএইচও। এরপরই এই ভোটাভুটিতে হেরে গেলো সৌদি আরব।
জাতিসংঘের মানবাধিকার পরিষদের সদস্যপদ পাওয়া দেশগুলো হচ্ছে- বলিভিয়া, যুক্তরাজ্য, চীন, কিউবা, ফ্রান্স, গ্যাবন, আইভরি কোস্ট, মালাওয়ী, মেক্সিকো, নেপাল, পাকিস্তান, রাশিয়া, সেনেগাল, ইউক্রেন ও উজবেকিস্তান। ২০২১ সালের ১ জানুয়ারি থেকে তিন বছর মেয়াদের জন্য এই দেশগুলো নির্বাচিত হয়েছে।

এশিয়া প্রশান্ত মহসাগরীয় অঞ্চলের জন্য নির্ধারিত চারটি আসন রয়েছে। চীন, পাকিস্তান, নেপাল, সৌদি আরব ও উজবেকিস্তান এই চার আসনের জন্য লড়াই করে। তবে ভোটাভুটিতে হেরে যায় সৌদি আরব। জেনেভাভিত্তিক মানবাধিকার পরিষদে নির্বাচিত সদস্য দেশগুলো নিজ দেশ এবং বিদেশে মানবাধিকার উন্নয়ন এবং সুরক্ষার জন্য সর্বোচ্চ মান তুলে ধরবে বলে আশা করা হয়।

২০১৫ সাল থেকে ইয়েমেনে সামরিক আগ্রাসন চালিয়ে যাচ্ছে সৌদি আরব। এতে এখন পর্যন্ত সাত হাজারেও বেশি শিশু হতাহত হয়েছে। এ প্রসঙ্গটি উল্লেখ করে ডব্লিউএইচও’র জাতিসংঘ বিষয়ক পরিচালক লুইস চার্বোনিউ বলেছেন, শিশু হত্যাকারীরা মানবাধিকার পরিষদের সদস্য হতে পারে না। এছাড়া মানবাধিকার কর্মী এবং রাজনৈতিক ভিন্নমতাবলম্বীদের বিরুদ্ধে মারাত্মক দমন পীড়ন চালায় সৌদি আরব।


শেয়ার করুন:

রিপ্লাই/মন্তব্য করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন
এখানে আপনার নাম লিখুন