ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনার চিকিৎসা সেবায় নিয়োজিত স্বাস্থ্যকর্মীদের খরচের বিষয়ে যে খবর প্রকাশ হয়েছে তা মিথ্যা ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে দাবি করেছেন হাসপাতালের পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসিরউদ্দিন।

বুধবার (১ জুলাই) সকালে সংবাদ সম্মেলনে ব্রিফ করেন তিনি। কোন অনিয়ম হয়ে থাকলে তা প্রমাণে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিলেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসকদের খাবারের বিল নিয়ে ক’দিন ধরেই সরব গণমাধ্যম, থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। বিতর্ক পৌঁছেছে সংসদেও।

এমন বাস্তবতায় প্রথমবারের মতো আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেললে ডিএমসি কর্তৃপক্ষ। পরিচালক জানান ২ মে থেকে শুরু করে এ পর্যন্ত প্রায় চার হাজার কোভিড রোগীকে সেবা দিয়েছে হাসপাতালটি। চিকিৎসক, নার্স, টেনিশিয়ান, কর্মকর্তা কর্মচারীসহ প্রায় তিন হাজার আট’শ লোক তিন শিফটে চব্বিশ ঘণ্টা নিয়োজিত এই কোভিড যুদ্ধে ফ্রন্টলাইনার হিসেবে। তাদের থাকা খাওয়া আর যাতায়াতের বিল প্রায় ২৬ কোটি টাকা, আর এরই পরিপ্রেক্ষিতে মন্ত্রণালয়ের প্রাথমিক বরাদ্দ এই বিশ কোটি।

ঢামেক পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসিরউদ্দিন বলেন, ‘চিকিৎসকের থাকা খাওয়া খরচ নিয়ে গণমাধ্যমে যেসব খবর প্রচার করা হচ্ছে তা মিথ্যা, ভিত্তিহীন এবং উদ্দেশ্য প্রণোদিত। আমরা সকলেই এই অপপ্রচারের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি।’

এই বিলে কোথাও অসঙ্গতি নেই। প্রমাণে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। প্রয়োজনীয় নথি এরই মধ্যে মন্ত্রণালয়, ও সংসদসহ প্রয়োজনীয় দপ্তরে পাঠানো হয়েছে বলেও ব্রিফিং এ জানানো হয়।

এমন খবর উদ্দেশ্য প্রণোদিত বলেন হাসপাতাল পরিচালক।

মন্তব্য করুন

আপনার কমেন্ট লিখুন
আপনার নাম লিখুন