যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন শহরে শনিবার হাজার হাজার মানুষের অংশগ্রহণে বর্ণবাদ বিরোধী শান্তিপূর্ণ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এসব সমাবেশ থেকে বর্ণবাদ অবসানে পরিবর্তনের ডাক এসেছে।

নিউইয়র্ক থেকে লস অ্যাঞ্জেলেস পর্যন্ত হাজার হাজার কৃষ্ণাঙ্গ, শ্বেতাঙ্গ ও বাদামী লোক রাস্তায় নেমে আসে। সমাবেশের মূল কেন্দ্র ছিল ওয়াশিংটন। হোয়াইট হাউস ঘিরেও ছিল প্রতিবাদকারীদের সমাবেশ।

ওয়াশিংটনের একজন প্রতিবাদকারী ক্রিশ্চিন মন্টগমেরি বলেন, বহু দশক ও শত শত বছর ধরে এ লড়াই চলে আসছে। এখন সময় এসেছে পরিবর্তনের।

সেনা সদস্য ও পুলিশ সদস্যদের দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গেছে। আগের তুলনায় তাদের উপস্থিতি ছিল কম। তাদের কেউ কেউ বিক্ষোভকারীদের স্মিত হাসি উপহার দেন এবং তাদের উদ্দেশে হাত নাড়েন।

বিক্ষোভে অংশ নেয়া ড্যানিস লরেন্ট মান্টে বলেন, মার্টিন লুথার কিং এখানে দাঁড়িয়েছিলেন। অনেক অনেক বছর পর নতুন আশার বার্তা নিয়ে আমরা এখানে ফিরে এসেছি।

এদিকে কেবল যুক্তরাষ্ট্রেই নয় ফ্লয়েডের হত্যার প্রতিবাদে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বিক্ষোভ হয়েছে।

গত ২৫ মে মিনেপোলিসে শেতাঙ্গ পুলিশের হাতে জর্জ ফ্লয়েড নামের নিরস্ত্র এক কৃষ্ণাঙ্গ প্রাণ হারালে তার প্রতিবাদে বিক্ষোভ শুরু হয়। হত্যাকাণ্ডের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে বিক্ষোভ তীব্র থেকে তীব্রতর হয়ে ওঠে। গত ২ সপ্তাহ ধরে প্রতিবাদ বিক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে।

রিপ্লাই দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here