চীনের গবেষকরা শুক্রবার বলেছেন, তারা করোনাভাইরাসের একটি সম্ভাব্য টিকা তৈরি করেছেন যা প্রথম দফার ট্রায়ালে নিরাপদ ও রোগ প্রতিরোধী প্রমাণিত হয়েছে। চীনা প্রতিষ্ঠান ক্যানসিনো বায়োলজিক্স এডি৫-এনসিওভি নামের ওপর টিকাটি তৈরি করেছে। খবর টাইমস নাউ নিউজের।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, করোনাভাইরাসের এই পরীক্ষামূলক টিকা ভাইরাসটি শনাক্ত করতে এবং সংক্রমণের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে শরীরকে প্রশিক্ষিত করতে পারে যা চিকিৎসাশাস্ত্র বিষয়ক বিখ্যাত সাময়িকী দ্য ল্যানসেট এই গবেষণা প্রকাশিত হয়েছে।

সেখানে বলা হয়েছে, চীনের হুবেই প্রদেশে উহানে, যেখান থেকে করোনাভাইরাস ছড়িয়েছে, সেখানকার ১৮-৬০ বছর বয়সী সুস্থ ১০৮ জনের ওপর এই টিকা প্রয়োগ করা হয়। গবেষকরা বলেন, ওই টিকা প্রয়োগের ২৮ দিন পর দেখা গেছে যে সহনীয় এবং রোগ প্রতিরোধী।

এই টিকার করোনা প্রতিরোধের ক্ষমতা থাকলেও এর কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার কথা বর্ণনা করেছেন গবেষকরা। এগুলোর মধ্যে রয়েছে ইনজেকশনের জায়গায় খানিকটা ব্যথা, জ্বর, ক্লান্তি আর মাথাব্যথা। গবেষকরা বলছেন, টিকা প্রয়োগের ২৪ ঘণ্টা পর এসব পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা যায়। তবে এগুলো ৪৮ ঘণ্টার বেশি স্থায়ী নয় বলেও জানিয়েছেন তারা।

এর আগে সোমবার মার্কিন বায়োটেক কোম্পানি মডার্না জানায়, তাদের তৈরি করা করোনার টিকা নিরাপদ ও কার্যকর মনে হয়েছে। আটজন ব্যক্তির ওপর ওই টিকা প্রয়োগের পর প্রাপ্ত ফলাফল থেকে তারা এ কথা বলেছে।

মন্তব্য করুন

আপনার কমেন্ট লিখুন
আপনার নাম লিখুন