চীনের একটি ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি জানিয়েছে তারা গত সপ্তাহে কভিড-১৯ এর একটি ভ্যাকসিন বানরের উপর প্রয়োগ করে সফলতা পেয়েছেন। এই ভ্যাকসিনে ক্যামিক্যালি নিষ্ক্রিয় করে রাখা করোনাভাইরাস দেয়া হয়েছে। এটি বানরের উপর প্রয়োগ করার পর বানর গুলো করোনাভাইরাসে আক্রন্ত হয়নি।

বিশ্বের প্রথম কোম্পানি হিসেবে এইচ১এন১ সোয়াইন ফ্লু ভাইরাসের ভ্যাকসিন বাজারজাত করা প্রতিষ্ঠান সিনোভ্যাক বায়োটেক দাবি করেছে যে, তাদের গবেষণায় বেশ অগ্রগতি হয়েছে। শুধু তাই নয় এখন তারা প্রতি বছর ১০ কোটি ভ্যাকসিন তৈরির জন্য প্রস্তুত আছে।
চীনের যে চারটি প্রতিষ্ঠান করোনাভাইরাস ভ্যাকসিন পরীক্ষা করার অনুমোদন পেয়েছে বেইজিং ভিত্তিক সিনোভ্যাক তাদের একটি। এফএপি বলছে, সিনোভ্যাকে ভ্যাকসিনটি মাত্র দুই সপ্তাহ ধরে মানুষের ওপর পরীক্ষা করা হচ্ছে এবং অনুমোদন পেতে অনেকটা পথ পাড়ি দিতে হবে। কিন্তু পরীক্ষামূলক ‘করোনাভ্যাক’ ভ্যাকসিনের হাজার হাজার ইউনিট ইতোমধ্যেই উৎপাদন করেছে কোম্পানিটি।
সিনোভ্যাক অনেক বেশি পরিমাণে এটি উৎপাদন করতে সক্ষম এবং নিয়ন্ত্রণের জন্য কর্তৃপক্ষকে দিতে হবে তাই এতগুলো ইউনিট উৎপাদন করেছে তারা।

এর আগে ১৬ এপ্রিল ১৪৪ জন স্বেচ্ছাসেবীর ওপর ভ্যাকসিনটির পরীক্ষা শুরু করে সিনোভ্যাক। এটি নিরাপদ কিনা তা আগামী জুনের শেষের দিকে জানা যাবে বলে আশা প্রকাশ করেছে কোম্পানি।

মন্তব্য করুন

আপনার কমেন্ট লিখুন
আপনার নাম লিখুন