উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং উন জীবিত না মৃত? উত্তর খুঁজছে বিশ্ববাসী। সোশ্যাল মিডিয়া থেকে শুরু করে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে এরইমধ্যেই খবর ছড়িয়ে পড়েছে মারা গেছেন উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট! দক্ষিণ কোরিয়া ও মার্কিন সংবাদ মাধ্যমগুলো দাবি করে আসছে, মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন কিম। এবার ‘গুজব’ ছড়িয়ে পড়েছে, আর বেঁচে নেই তিনি। যদিও উত্তর কোরিয়ার পক্ষ থেকে অবশ্য কোনও বিবৃতি দেয়া হয়নি। তাই বিষয়টাকে এখন স্রেফ গুজব বলেই উড়িয়ে দেয়া যায় বলে জানাচ্ছে নিউইয়র্ক টাইমস।
এদিন ওয়াশিংটনের নর্থ কোরিয়া মনিটরিং প্রজেক্টের পক্ষ থেকে একটি স্যাটেলাইট ছবি প্রকাশ করা হয় ৷ যেখানে দেখা যাচ্ছে, উত্তর কোরিয়ার একটি রিসর্ট টাউনে যাচ্ছে একটি ট্রেন। মনে করা হচ্ছে, ওই বিশেষ ট্রেনেই ছিলেন কিম জং উন।
গেল ২১ থেকে ২৩ এপ্রিলের মধ্যে ওয়ানসনের ‘লিডারশিপ স্টেশন’-এ দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায় ওই ট্রেনটিকে। যেই স্টেশন কিমের পরিবারের জন্য রিজার্ভড। তাই তিনি যে এখনও জীবিত, এই স্যাটেলাইট ছবির মাধ্যমে দাবি করেছে যুক্তরাষ্ট্রের ওই সংস্থা। যদিও আর কোনও সংবাদসংস্থার পক্ষ থেকে এমনটা জোর দিয়ে কেউই দাবি করতে পারেনি, যে ওই ট্রেনে কিম ছিলেন।
এদিকে শনিবার হংকংয়ের একটি টেলিভিশন দাবি করে মারা গেছেন কিম। কিমের মৃতদেহের ছবি বলে একটি পোস্টও সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরছে। তকে অনেকেই দাবি করছে সেটি তার বাবা কিম জং ইলের শেষযাত্রার ছবি।

বাবার শেষ যাত্রায় কিম জং উন

ফাউন্ডেশন ফর দ্য ডিফেন্স অব ডেমোক্রেসির উত্তর কোরিয়া বিশেষজ্ঞ ডেভিড ম্যাক্সওয়েল বলেন, ‘আপনি যখন উত্তর কোরিয়া নিয়ে কথা বলবেন, তখন অবশ্যই দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থার উপর নির্ভর করতে হবে।’
মার্কিন প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘যদি ঘটনা সত্যি হতো তাহলে দেশটির সাড়ে ৬ লাখ স্মার্টফোন ব্যবহারকারীর মাধ্যমে বিষয়টি যেমনেই হোক সামনে চলে আসত।’
কয়েক দিন আগেই কিম জং উনের অসুস্থতার খবর ছড়িয়ে পড়ে। দক্ষিণ কোরিয়ার একটি সংবাদ সংস্থা জানায়, হৃদরোগে আক্রান্ত তিনি। অস্ত্রোপচারের পর সঙ্কটাপন্ন অবস্থায় একটি রিসর্টে চিকিৎসাধীন দেয়া হচ্ছে তাকে। সেখানে পরিবারে সদস্যরা রয়েছে তার সঙ্গে। একটি চীনা চিকিৎসক দলের পর্যবেক্ষণে রয়েছেন তিনি।

মন্তব্য করুন

আপনার কমেন্ট লিখুন
আপনার নাম লিখুন