করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের সহকারী অধ্যাপক ডা. মঈন উদ্দিনকে তার বাবা- মায়ের কবরের পাশেই চিরনিদ্রায় শায়িত করা হয়েছে।
আজ বুধবার (১৫ এপ্রিল) সন্ধ্যায় অ্যাম্বুলেন্সযোগে মরদেহ গ্রামের বাড়ি সুনামগঞ্জের ছাতকের উত্তর খুরমা ইউনিয়নের নাদামপুরে গ্রামের বাড়িতে এসে পৌঁছালে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।
মরহুমের জানাযার নামাজের ইমামতি করেন তার চাচাতো ভাই মাওলানা ইসরাফীল আহমদ।
জানাজায় মরহুমের বোনের জামাই, চাচাতো ভাই ও ভাতিজাসহ মোট ৬ জন মানুষ অংশ নিতে পেরেছিলেন।
ছাতক উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) তাপস শীল বলেন, পরিবারের ইচ্ছায় গ্রামের বাড়িতেই পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে ডা. মঈন উদ্দিনকে। সংক্রমণ স্বাস্থ্যবিধি মেনে উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় তাকে দাফন করা হয়।
উল্লেখ্য, গেল ৫ এপ্রিল সিলেটে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত প্রথম রোগী হিসেবে এই চিকিৎসককে শনাক্ত করা হয়। ৭ এপ্রিল রাতে শারীরিক অবস্থায় অবনতি হলে আশঙ্কাজনক অবস্থায় বাসা থেকে ওই চিকিৎসককে সিলেট শহীদ শামসুদ্দিন হাসপাতালের আইসোলেশন সেন্টারে নেয়া হয়। প্রথমে হাসপাতালের আইসিইউতে নেয়া হলেও পরে কেবিনে নিয়ে আসা হয়। অক্সিজেন সাপোর্ট দিয়ে তার শ্বাস-প্রশ্বাস স্বাভাবিক রাখা হয়। ৮ এপ্রিল ঢাকায় পাঠানো হয় এই চিকিৎসককে। সাতদিন চিকিৎসাধীন থাকার পর বুধবার ভোরে তিনি মারা যান।

মন্তব্য করুন

আপনার কমেন্ট লিখুন
আপনার নাম লিখুন