চলতি অর্থবছরেই করোনার বিপর্যয়ে জরুরি ভিত্তিতে ২৫ কোটি ডলার চেয়েছে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ (ইআরডি)। বর্তমান বাজার দরে টাকার অঙ্কে এর পরিমাণ ২ হাজার ১২৫ কোটি টাকা। গত বছরের প্রতিশ্রুত ৭৫ কোটি ডলারের বাজেট সহায়তার দ্বিতীয় কিস্তির এই অর্থ চাওয়া হয়েছে।

সেই সাথে আগামী অর্থবছরের বাজেটের জন্য নতুন করে ৫০ কোটি ডলার বাজেট সহায়তা চেয়ে বিশ্বব্যাংকের কাছে চিঠি পাঠিয়েছে ইআরডি। ইআরডির দায়িত্বশীল সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে। করোনা বিপর্যয়ে অর্থনীতিকে চাঙা রাখতে গত সপ্তাহে বিশ্বব্যাংককে এই চিঠি দেওয়া হয়েছে।

বিশ্বব্যাংকসহ দাতারা সাধারণত প্রকল্পভিত্তিক সহজ শর্তে ঋণ দিয়ে থাকে। আর বাজেটে সহায়তার অর্থ যেকোনো সরকার নিয়ে নিজেদের ইচ্ছেমতো খরচ করতে পারে।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে ইআরডির একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা আজ প্রথম আলোকে বলেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে বাজেটের চাহিদা মেটাতে বাড়তি অর্থ প্রয়োজন। এ জন্য বাজেট সহায়তা চাওয়া হয়েছে। বিশ্বব্যাংক এখনো বিস্তারিত কিছু জানায়নি।
এ ছাড়া বিশ্বব্যাংক গত ৪ এপ্রিল করোনা প্রতিরোধে বাংলাদেশকে ১০ কোটি ডলার দেওয়ার কথা জানায় । বর্তমান বাজার দরে টাকার অঙ্কে এর পরিমাণ সাড়ে ৮০০ কোটি টাকা। শিগগির ইআরডির সঙ্গে বিশ্বব্যাংকের এই সংক্রান্ত চুক্তি হবে বলে জানা গেছে।

রিপ্লাই দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here