ভারতে কোভিড–১৯–এর তাণ্ডব ক্রমশ বেড়েই চলেছে। করোনার এই দাপটে সাধারণ মানুষের পাশাপাশি বলিউড তারকারাও রীতিমতো চিন্তিত ও আতঙ্কিত। তাই সব তারকাই এখন নিজেদের বাড়িতে কোয়ারেন্টিনে। নিজেরা তো লকডাউন মানছেনই, ভক্তদেরও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহার করে ঘর থেকে বের হতে নিষেধ করছেন।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ডাকা ২১ দিনের লকডাউনে বলিউড তারকারা সবাই স্বতঃস্ফূর্তভাবে সাড়া দিয়েছেন। অবশ্য অবস্থাই এমন যে সাড়া না দিয়ে উপায়ও নেই। এদিকে বলিউড সুপারস্টার সালমান খান করোনা সংক্রমণের ভয়ে মুম্বাইয়ের বাড়ি ছেড়েছেন।

করোনার কারণে সালমান তাঁর প্রিয় গ্যালাক্সি অ্যাপার্টমেন্ট ছেড়ে চলে গেছেন। খবর অনুযায়ী, বলিউডের ভাইজান এখন সপরিবার পানভেলের ফার্ম হাউসে গৃহবন্দী আছেন। এখানে তিনি তাঁর পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাচ্ছেন।

সালমানের সঙ্গে তাঁর প্রিয় বোন অর্পিতা খান ও তাঁর স্বামী অভিনেতা আয়ুশ শর্মা, আর তাঁদের দুই সন্তান আহিল ও আয়াত আছেন। জানা গেছে, পানভেলের এই ফার্ম হাউসে একটি জিম আছে। তবে শরীরচর্চা বন্ধ করেননি সালমান খান। বাড়িকেই বানিয়ে ফেলেছেন ব্যায়ামাগার।

সালমানের ফার্ম হাউসে বলিউডের সুলতান ডর্ট বাইক, বুলেটস আর জিপ সওয়ারির মজাও নিচ্ছেন। তবে সালমান তাঁর বাবা সেলিম খান এবং মা সালমা খানকে সঙ্গে নিয়ে যেতে পারেননি। তাঁরা এখনো বান্দ্রার গ্যালাক্সি অ্যাপার্টমেন্টেই আছেন। বয়সজনিত কারণে তাঁদের একাধিক মানুষের সঙ্গে সফর করতে নিষেধ করা হয়েছে।

অন্যদিকে ইনস্টাগ্রামে এক ভিডিও বার্তায় অন্যান্য বলিউড তারকার মতো সালমান খানও ধন্যবাদ জানিয়েছেন চিকিৎসক, নার্স, পুলিশসহ অন্যান্য পেশার মানুষকে; যাঁরা এই ভয়াবহ সময়েও করোনার চেইন ভাঙতে, করোনা–আক্রান্তদের সুস্থ করে বাড়ি পাঠাতে কাজ করে যাচ্ছেন।

সালমান খান বলেন, ‘আর সবকিছু ভুলে যান। খুবই সংকটপূর্ণ অবস্থা। এটাকে মোটেই হালকাভাবে নেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। ঘরে থাকুন। সাবান দিয়ে হাত ধোবেন। পরিবারকে সময় দিন। নিজে বাঁচুন, অন্যকে বাঁচান।’

মন্তব্য করুন

আপনার কমেন্ট লিখুন
আপনার নাম লিখুন