চট্টগ্রামে ৮ জনের নমুনা পরীক্ষা, সবারই নেগেটিভ

শেয়ার করুন:


ফৌজদারহাটের বিআইটিআইডি হাসপাতালে বুধবার থেকে শুরু হয়েছে করোনাভাইরাস পরীক্ষার কার্যক্রম।

প্রথম দিন সন্দেহজনক তিনজনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরদিন (বৃহস্পতিবার) সংগ্রহ করা হয় আরো ৫ জনের। দুদিনে সবমিলয়ে সন্দেহজনক ৮ জনের নমুনা সংগ্রহ করে এর পরীক্ষা সম্পন্ন করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এই ৮টি নমুনা পরীক্ষায় সবকয়টির রেজাল্টই নেগেটিভ এসেছে বলে জানিয়েছেন বিআইটিআইডির পরিচালক প্রফেসর ডা. এমএ হাসান। ৮টি নমুনা পরীক্ষায় একটিও পজিটিভ না পাওয়ার বিষয়টি অনেকটা স্বস্তির খবর বলে জানান চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি।

এদিকে, ৩য়দিনে (শুক্রবার) সন্দেহজনক আরো ৪ জনের শরীরের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে, এই চারজনের রিপোর্ট আজ শনিবার পাওয়া যাবে বলে জানিয়েছেন বিআইটিআইডির পরিচালক। এর আগে আরো ১৪ জনের নমুনা সংগ্রহ করে তা ঢাকার আইইডিসিআর-এ পাঠানো হয়। ওই ১৪ জনের ফলাফলও নেগেটিভ আসে। অ্যাম্বুলেন্সে ঘরে গিয়েই নেয়া হবে নমুনা : কারো শরীরে করোনাভাইরাসের লক্ষণ দেখা দিলে নমুনা দিতে সরাসরি হাসপাতালে যাওয়ার প্রয়োজন হবে না। সন্দেজনক ওই রোগী প্রথমে বিআইটিআইডির সাথে ফোনে যোগাযোগ করে বিস্তারিত জানাবেন। ওই ব্যক্তির লক্ষণ পর্যালোচনা করে বিআইটিআইডির করোনা সংক্রান্ত বিশেষজ্ঞ টিম সিদ্ধান্ত নেবেন পরীক্ষার প্রয়োজন আছে কিনা।

বিশেষজ্ঞ টিম পরীক্ষার পক্ষে মত দিলে নমুনা সংগ্রহের জন্য সন্দেজনক ওই রোগীর ঘরেই টিম পাঠিয়ে দেওয়া হবে। অ্যাম্বুলেন্সযোগে একটি টিম গিয়ে এই নমুনা সংগ্রহ করবে। শুধু নমুনা সংগ্রহের জন্য আলাদা একটি অ্যাম্বুলেন্স প্রস্তুত রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিআইটিআইডির করোনা সংক্রান্ত বিশেষজ্ঞ কমিটির প্রধান ডা. মামুনুর রশীদ। তিনি বলেন, আমাদের টেকনোলজিস্টসহ একটি টিম সন্দেহজনক রোগীর ঘরে গিয়েই নমুনা সংগ্রহ করে নিয়ে আসবে। তাই কারো শরীরে করোনভাইরাসের কোনো ধরনের লক্ষণ দেখা দিলেই হাসপাতালে ছুটে আসার বা যাওয়ার প্রয়োজন নেই। আগে ফোনে কথা বলে বিস্তারিত জানান। পরীক্ষার প্রয়োজন হলে নমুনা নিতে আমাদের টিম ঘরে পৌঁছে যাবে।

০২৪৪০৭৫০৪২ ও ০২৪৪০৭৫০৪৩ এই দুটি নম্বরে বিআইটিআইডি-তে যোগাযোগ করা যাবে। তবে সাধারণ মানুষের সুবিধার্থে আজ-কালের মধ্যে আরো এক বা একাধিক মোবাইল নম্বর হট লাইন হিসেবে যোগ করার চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন বিআইটিআইডির পরিচালক ডা. এমএ হাসান।

সুরক্ষা সরঞ্জাম : মহানগর ও উপজেলার হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের সুরক্ষায় প্রায় ৯০০ পিপিই (পারসোনাল প্রোটেকশন ইকুইপমেন্ট) সরবরাহ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি। অবশ্য, চিকিৎসকও স্বাস্থ্য কর্মীদের জন্য আরো পিপিই আসার কথা রয়েছে বলেও জানান সিভিল সার্জন।


শেয়ার করুন:

রিপ্লাই/মন্তব্য করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন
এখানে আপনার নাম লিখুন