রাউজানে শ্রমজীবীর পাশে সাংসদ পুত্র: ফারাজ করিম চৌধুরী।

শেয়ার করুন:


রাউজানে সাম্ভাব্য করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় সরকারি উদ্যোগের পাশাপাশি অনেকেই ব্যক্তি উদ্যোগে গৃহবন্দী হয়ে পড়া মানুষকে সহযোগিতায় এগিয়ে এসেছেন। তারা বিভিন্ন কর্মসূচি নিয়ে গরীর মানুষকে সহায়তা দিচ্ছেন। বিতরণ করছেন মাস্কসহ হাত ধোয়ার উপকরণ।

এই দুর্যোগে মানবিক কাজে ঝাঁপিয়ে পড়া ব্যক্তিদের মধ্যে অন্যতম একজন রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি রাউজানের সাংসদ এবিএম ফজলে করিম চৌধুরীর জ্যেষ্ঠ পুত্র ফারাজ করিম চৌধুরী।

তিনি এই উপজেলায় অন্যান্য মানবিক ও সামাজিক কাজের পাশাপাশি গত প্রায় এক সপ্তাহ ধরে করোনাভাইরাসের সতর্কতায় উপজেলার বিভিন্ন স্থানে জনসচেতনতামূলক প্রচার চালানোর পাশাাপশি মাস্ক ও জীবাণুনাশক দ্রব্য বিতরণ করেছেন।

এখন শ্রমজীবী মানুষের বাড়িতে বাড়িতে খাদ্যদ্রব্য পৌঁছে দিচ্ছেন।

জানা যায়, তার ব্যক্তিগত উদ্যোগে দেয়া হচ্ছে ৭ হাজার পরিবারের জন্য খাবার।

ইতোমধ্যেই তার এই কর্মসূচিকে সমর্থন করে তার সাথে যোগ দিয়েছেন স্থানীয় রাজনীতিক, ব্যবসায়ী, ব্যাংকার, ডাক্তার, সমাজকর্মীসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ।
এসব মানবিক কর্মসূচিতে থেকে দ্রব্য সামগ্রী বিতরণ ও প্যাকেটজাত করছেন ফারাজ করিম চৌধুরীর সেবামূলক প্রতিষ্ঠান সেন্ট্রাল বয়েজ অভ রাউজান-এর হেল্প ডেস্ক টিমের সদস্যরা।

এই কার্যক্রমের প্রধান সমন্বয়ক হিসাবে আছেন স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক লিমিটেড-এর (ইসি) চেয়ারম্যান এসএএম হোসাইন।
স্থানীয়ভাবে যারা সমন্বয়কের কাজ করছেন তাদের মধ্যে আছেন নোয়াজিশপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান লায়ন এম সরোয়াদ্দি সিকদার, ব্যবসায়ী মোহাম্মদ সালাউদ্দিন, ব্যাংকার মফজল হোসেন প্রমুখ।

এছাড়া ব্যক্তিগতভাবে শ্রমজীবী ও দরিদ্র পরিবার সমূহে এই সময়ে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করছেন রাউজান উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এহেছানুল হায়দর চৌধুরী বাবুল, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি জমির উদ্দিন পারভেজ, তরুণ আওয়ামী লীগ নেতা আলহাজ্ব সাইফুদ্দিন চৌধুরী সাবু, সাইফুল ইসলাম চৌধুরী রানা, যুবলীগ নেতা আহসান হাবিব চৌধুরী হাসান প্রমুখ।


শেয়ার করুন:

রিপ্লাই/মন্তব্য করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন
এখানে আপনার নাম লিখুন