লিওনেল মেসি বাড়িতে। স্ত্রী-সন্তানদের সঙ্গে সময় কাটাচ্ছেন। অনলাইনে ফুটবলাররা কী এক ‘টয়লেট পেপার’ কারিকুরিতে জড়িয়ে পড়েছেন, সেই চ্যালেঞ্জেও নাম লিখিয়ে দিব্যি ভিডিও দিয়েছেন টুইটারে। করোনাভাইরাসে লিগ-টিগ সব বন্ধ, কোয়ারেন্টিনে গৃহবন্দী বার্সেলোনার আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডের এ-ই হলো দিনযাপনের খণ্ডচিত্র।

গ্যারেথ বেল পড়ে আছেন গলফ নিয়ে। অবশ্য এ আর এমন আশ্চর্য কী! তা-ই তো হওয়ার কথা। বেল আর গলফের সম্পর্ক তো যেন কোনো আঠায় লাগানো মজবুত জোড়া! কোয়ারেন্টিনের দিনগুলোতে কী করছেন, তা অন্য সবার মতো সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পোস্ট-টোস্ট করে অবশ্য জানাচ্ছেন না রিয়াল মাদ্রিদের ওয়েলশ ফরোয়ার্ড। তবে দুদিন আগে খবর এল, নিজ শহর কার্ডিফে গলফের আবহে একটি বার বানিয়েছেন বেল।

তা মেসি-বেলরা বাড়িতে শুয়ে-বসে আনন্দে সময় কাটাচ্ছেন, একই অবস্থা বার্সার পিকে-গ্রিজমান-ডি ইয়ং বা রিয়ালের ভিনিসিয়ুস-বেনজেমা-ইসকোদেরও। সবাই-ই তো এখন কোয়ারেন্টিনে। অথচ এদিকে তাঁদের ছাড়াই একটা টুর্নামেন্টে নেমেছে বার্সেলোনা-রিয়াল মাদ্রিদ! কী আশ্চর্য! টুর্নামেন্টের শেষ ষোলোতেও উঠে গেছে দুই দল। যেখানে বার্সেলোনা অপেক্ষা করছে এসপানিওল-এইবার ম্যাচের জয়ী দলের জন্য। আর রিয়াল মাদ্রিদের প্রতিপক্ষ এরই মধ্যে ঠিক হয়ে গেছে—গ্রানাদা।

লিগ-চ্যাম্পিয়নস লিগের খেলা স্থগিত হয়ে আছে, রিয়াল-বার্সা দুই দলই এবার স্প্যানিশ কোপা দেল রে থেকেও বাদ পড়ে গেছে আগেই। তাহলে এখন আবার এই করোনাভাইরাসের প্রভাবে ফুটবলের স্থবির হয়ে থাকার দিনগুলোতে কোন টুর্নামেন্টে নেমেছে দুই দল?

মেসি, বেল বা বেনজেমার ভক্তদের হায় হায় করার কিছু নেই। দলের সেরা তারকাদের রেখে গুরুত্বপূর্ণ কোনো টুর্নামেন্টে নামার অবিমৃশ্যকারিতা দেখায়নি বার্সা-রিয়াল। এই টুর্নামেন্টটা আসল ফুটবলে নয়, ভিডিও গেম ফিফায়। করোনা ফুটবল বন্ধ করে রেখেছে, বিশ্বজুড়ে জীবনযাত্রাই থমকে গেছে। এ সময়ে স্প্যানিশ লিগের ২০টি দল নিয়ে ফিফায় নতুন একটা টুর্নামেন্ট চালু করেছেন ইউটিউব তারকা ইবাই লানোস। যাতে প্রতিটি ক্লাব থেকে একজন করে খেলোয়াড় মনোনীত হয়েছেন, যাঁরা নিজ নিজ ক্লাবের হয়ে খেলবেন নকআউটভিত্তিক এই টুর্নামেন্টে।

বার্সার পক্ষ থেকে ফিফা ২০-র এই টুর্নামেন্টে লড়বেন সার্জি রবার্তো। রিয়ালের ‘গেম-প্যাড’ যোদ্ধা মার্কো আসেনসিও। অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের হয়ে লড়বেন কদিন আগে চ্যাম্পিয়নস লিগে লিভারপুলের মাঠে দলটার হয়ে আলো ছড়ানো মার্কোস ইয়োরেন্তে। শেষ ষোলোতে অ্যাটলেটিকোর প্রতিপক্ষ রিয়াল সোসিয়েদাদ। লিগের ২০ দলের সবাই অবশ্য খেলছে না, রিয়াল মায়োর্কা না খেলায় টুর্নামেন্টটা হচ্ছে ১৯ দলের।

এখানেও অবশ্য আসল লিগের পয়েন্ট তালিকার একটা প্রভাব আছে। প্রথম ১৩টি ক্লাব সরাসরি খেলবে শেষ ষোলোতে। বাকি ছয়টি ক্লাব প্রাথমিক বাছাই খেলবে, সেখান থেকে তিনটি যাবে শেষ ষোলোতে।

রিপ্লাই দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here