পটিয়া পিটিআইয়ের ঘটনা তদন্তে হুইপের তদন্ত কমিটি গঠন

শেয়ার করুন:


পটিয়া প্রাইমারি ট্রেনিং ইনস্টিটিউট (পিটিআই) পরিদর্শন করছেন জাতীয় সংসদের হুইপ সামশুল হক চৌধুরী এম.পি। চার প্রশিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠায়  গতকাল বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টায় তিনি সেখানে বিভিন্ন প্রশিক্ষক ও প্রশিক্ষণার্থীদের সাথে ঘটনার বিষয়ে কথা বলেন। এসময় তিনি মহিলা হোস্টেলসহ পিটিআইয়ের বিভিন্ন স্থান পরিদর্শন করেন। তিনি সত্য ঘটনা উদঘাটন করতে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করে দেন। উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরীকে প্রধান করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফারজানা জাহান উপমা ও পটিয়া থানার ওসি বোরহান উদ্দিনকে সদস্য করে তিনি এ তদন্ত কমিটি গঠন করেন।

হুইপ সামশুল হক চৌধুরী এম.পি এই তদন্ত কমিটি আগামী ৭ দিনের মধ্যে প্রকৃত সত্য ঘটনা উদঘাটন করে প্রতিবেদন জমা দিতে বলেন। এসময় তিনি জানান, ঘটনায় যারাই জড়িত থাকুক না কেন তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি পেতে হবে। এ বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব ও প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগের ডিডি’কে জানানো হয়েছে। পিটিআই পরিদর্শন করে হুইপ প্রশিক্ষণার্থীদের সাথে কথা বলে তাদের এ ঘটনায় উদ্বিগ্ন না হয়ে যথাসময়ে ক্লাস ও পরীক্ষায় অংশ নেয়ারও নির্দেশ দেন এবং পিটিআইয়ের সকল প্রশিক্ষক পরিবর্তনের কথা জানান।

এর আগে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের নির্দেশে জেলা প্রশাসনের তদন্ত দলের প্রধান ও অতিরিক্তি জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) আবু হাসান ছিদ্দিকের নেতৃত্বে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তিনি গত সোমবার ও মঙ্গলবার পটিয়ার পিটিআইয়ে এসে অভিযুক্ত প্রশিক্ষক ও বেশ কয়েকজন প্রশিক্ষণার্থীসহ বিভিন্ন পেশার মানুষের সাথে কথা বলে সত্য ঘটনা উদঘাটনের চেষ্টা চালিয়ে যান। এবং প্রাথমিক শিক্ষা চট্টগ্রাম বিভাগের বিভাগীয় সহকারী পরিচালক রাশেদা বেগমকে প্রধান করে তিন সদস্যর একটি কমিটি গঠন করেন। কমিটির অন্যান্য সদস্যরা হলেন জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার শহিদুল ইসলাম ও পিটিআইয়ের (ভারপ্রাপ্ত) সুপারিনটেনডেন্ট তপন কুমার দাশ। এ কমিটি প্রাথমিক শিক্ষা চট্টগ্রাম বিভাগের উপ পরিচালক সুলতান মিয়ার কাছে তাদের প্রতিবেদন পেশ করবে।

হুইপের পরিদর্শনকালে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী, পটিয়া পৌরসভার মেয়র অধ্যাপক হারুনুর রশিদ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফারহানা জাহান উপমা, সহকারী কমিশনার (ভূমি) ইনামুল হাসান, পটিয়া থানার ওসি বোরহান উদ্দিন, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আবু আহমেদ, উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা আলমগীর খালেদ, পৌর কাউন্সিলর গোফরান রানা, কামাল উদ্দিন বেলাল, আবু ছৈয়দ, রূপক সেন, পৌরসভা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন পারভেজ, পিটিআইয়ের (ভারপ্রাপ্ত) সুপারিনটেনডেন্ট তপন কুমার দাশ, প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রধান শিক্ষক স্বপন কুমার চৌধুরী।
উল্লেখ্য, গত ৬ মার্চ রাতে পটিয়া পিটিআইয়ে চার প্রশিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন কেলেঙ্কারির অভিযোগ তুলে ও তার প্রতিবাদ জানিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে চট্টগ্রামে নিজের বাসায় ঘুমের ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা চালান পিটিআইয়ের প্রশিক্ষক (আইটি) দেবব্রত বড়ুয়া দেবু।


শেয়ার করুন:

রিপ্লাই/মন্তব্য করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন
এখানে আপনার নাম লিখুন