মেসির জোড়া গোলে জয়ে ফিরল বার্সেলোনা

শেয়ার করুন:

স্পোর্টস ডেস্ক: মালাগার বিপক্ষে লিগের আগের ম্যাচে হার, গোল পাননি মেসি। জুভেন্টাসের বিপক্ষে চ্যাম্পিয়নস লিগ কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে হার, গোল পাননি মেসি। দলের সেরা খেলোয়াড়ের গোলখরায় জিততে পারেনি বার্সেলোনাও। আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড গোলে ফিরতেই জয়ে ফিরল কাতালানরা। মেসির জোড়া লক্ষ্যভেদে ঘরের মাঠে বার্সেলোনা ৩-২ গোলে হারিয়েছে রিয়াল সোসিয়েদাদকে।

স্কোরলাইন বলে দিচ্ছে ন্যু ক্যাম্পের লড়াই উত্তেজনা ছড়িয়েছিল কেমন। তবে মেসির দিনে দিনটা হয়েছে বার্সেলোনার। প্রথমার্ধে জোড়া লক্ষ্যভেদ করে আর্জেন্টাইন অধিনায়ক বার্সেলোনার জার্সিতে সব প্রতিযোগিতা মিলে নিজের গোল সংখ্যা নিয়ে গেছেন ৪৯৮-তে। আর দুই গোল পেলেই ৫০০ গোলের মাইলফলক স্পর্শ করবেন তিনি।

মেসি ম্যাজিকের আগে সোসিয়েদাদের আক্রমণে কেঁপে উঠেছিল স্বাগতিকরা। ১২তম মিনিটে এগিয়ে যাওয়ার দারুণ সুযোগ পেয়েছিল সফরকারীরা। বিপরীতে একটু একটু করে ছন্দে ফেরা কাতালানদের এগিয়ে নেন মেসি ১৭তম মিনিটে। পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ীর গোলটা ছিল দেখার মতো। পাকো আলকাসেরের পাস ধরে লুই সুয়ারেস দিয়েছিলেন মেসির উদ্দেশে, আর্জেন্টাইন তারকা বক্সের অনেকটা বাইরে থেকে জোড়ালো শটে করেন লক্ষ্যভেদ। ৩৭ মিনিটে মেসি পান দ্বিতীয় গোল। এতে আছে অবশ্য ভাগ্যের ছোঁয়া। বক্সের ভেতর থেকে সুয়ারেসের শট সোসিয়েদাদ গোলরক্ষক রুই প্রতিহত করলেও ঠিকঠাক ‘ক্লিয়ার’ করতে না পারায় গোলমুখের সামনেই থাকা মেসির পায়ে লেগে বল জড়িয়ে যায় জালে। বার্সেলোনার জার্সিতে ৪৯৮তম গোল পাওয়া ‘এলএমটেন’ চলতি লিগ মৌসুমে নিজের গোল সংখ্যা নিয়ে গেলেন ২৯-এ।

পাগলাটে প্রথমার্ধের শুরুটা হয় ৪২তম মিনিট দিয়ে। বিরতিতে যাওয়ার আগে এই ৩ মিনিটের মধ্যে হয়েছে ৩ গোল! ২-০ গোলে পিছিয়ে থাকা সোসিয়েদাদ কপালগুণে গোল পেয়ে যায় স্যামুয়েল উমতিতি নিজেদের জালে বল জড়ালে। আত্মঘাতি গোলের পর বার্সেলোনা ব্যবধান ৩-১ করে আলকাসের লক্ষ্যভেদ করলে। মেসির বাড়ানো অসাধারণ পাস বক্সের ভেতর নিয়ন্ত্রণে নিয়ে বাঁ পায়ের আড়াআড়ি শটে জালে জড়ান কার্ড সংক্রান্ত নিষেধাজ্ঞায় খেলতে না পারা নেইমারের জায়গায় নামা এই স্ট্রাইকার। স্কোরলাইন ৩-১ থেকে ৩-২ হতে সময় নেয়নি, প্রথমার্ধের ইনজুরি টাইমে সোসিয়েদাদের দ্বিতীয় গোলটি করেন জাবি প্রিয়েতো। উইলিয়ান হোসে দি সিলভার বাড়ানো মাপা ক্রস দুর্বল রক্ষণের সুযোগ নিয়ে জালে জড়ান এই মিডফিল্ডার।

প্রথমার্ধের এই স্কোরলাইনের শেষ হয়েছে ম্যাচ। দ্বিতীয়ার্ধে দুই দলই সুযোগ পেয়েছে অনেক, কিন্তু গোলের দেখা পায়নি কেউই। সবচেয়ে ভালো সুযোগটা পেয়েছিলেন সম্ভবত সুয়ারেস। ম্যাচের শেষদিকে সোসিয়েদাদের গোলরক্ষককে একা পেয়েও বল জালে জড়াতে পারেননি উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার। তিনি ব্যর্থ হলেও ৩ পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়তে সমস্যা হয়নি তার দল বার্সেলোনার। ঘাম ঝরানো এই জয় এলো টানা দুই ম্যাচ হারের পর। সবশেষ চ্যাম্পিয়নস লিগে জুভেন্টাসের বিপক্ষে ৩-০ গোলের বড় হার নিয়ে ফিরতে হয়েছে বার্সেলোনাকে, তার আগে লিগ ম্যাচে মালাগার বিপক্ষে ফিরেছিল ২-০ গোলের হার নিয়ে। মেসি জাদুতে পাওয়া জয়ে আত্মবিশ্বাসটাও ফিরে পেয়েছে স্প্যানিশ চ্যাম্পিয়নরা। জুভেন্টাসের বিপক্ষে দ্বিতীয় লেগ ও চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে রোমাঞ্চকর লড়াইয়ের আগে জয়টা খুব দরকার ছিল তাদের।

‘এল ক্লাসিকো’র জন্য তো বটেই। শনিবার আগের ম্যাচে রিয়াল জয় পাওয়ায় ৬ পয়েন্টে গিয়েছিল এগিয়ে। এখন বার্সেলোনা জেতায় পয়েন্ট ব্যবধান থাকল আগের মতোই ৩ পয়েন্টের, যদিও রিয়াল খেলেছে এক ম্যাচ কম। ৩২ ম্যাচ শেষে বার্সেলোনার পয়েন্ট ৭২, আর ৩১ ম্যাচে রিয়ালের পয়েন্ট ৭৫।

Source : গোল ডটকম

Related Article : Messi Barcelona win Returned


শেয়ার করুন:

রিপ্লাই/মন্তব্য করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন
এখানে আপনার নাম লিখুন