বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক ব্যক্তি মারা গেছেন

শেয়ার করুন:

১৮৯৯ সালে ইটালির পিডমন্ট অঞ্চলে জন্মগ্রহণকরেছিলেন এমা মোরানো। নথিপত্র অনুযায়ী ১৯০০–র আগে জন্ম নেয়া জীবিত মানুষদের মধ্যে তিনিইছিলেন শেষ ব্যক্তি।
বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, তিনি নিজেরদীর্ঘায়ুর কারণ হিসেবে তার জিনগত বৈশিষ্ট্য এবং তারদিনে তিনটি ডিম খাওয়ার অভ্যাসের কথাবলেছিলেন। তিনটি ডিমের মধ্যে দুটিই তিনি কাঁচাখেতেন।

মিজ মোরানো ছিলেন আট ভাই–বোনের মধ্যে সবারবড়, যাদের সবাই তার আগেই মারা গেছেন। তিনিউত্তরাঞ্চলীয় ভারবানিয়া শহরে নিজ বাসভবনে মারাযান।

তিনি যে জীবদ্দশায় শুধু তিনটি শতক দেখেছেন তাইনয়, নির্যাতনমূলক বৈবাহিক সম্পর্ক থেকে তিনিবেরিয়ে এসেছেন, তার একমাত্র শিশুপুত্রকেও হারাতেহয়েছে, দুটি বিশ্বযুদ্ধ তিনি দেখেছেন এবং ৯০ বারইটালির সরকার পরিবর্তন হতে দেখেছেন।

মিজ মোরানো স্বীকার করেছেন যে তার দীর্ঘায়ুরএকটি বড় কারণ তার বংশগতি বা জিনগত বৈশিষ্ট্য।তার মাও ৯১ বছর পর্যন্ত বেঁচে ছিলেন এবং তারকয়েকজন বোনও ১০০ বছর পার করেছিলেন।

তবে একইসাথে তার দীর্ঘায়ুর পেছনে তার অস্বাভাবিকএকটি খাদ্যাভ্যাসও রয়েছে– দিনে তিনটি ডিম, তারমধ্যে দুটি কাঁচা এবং ৯০ বছরের বেশি সময় যাবতপ্রতিদিন তিনি এই খাবার খেয়ে আসছেন।

প্রথম বিশ্বযুদ্ধের পর এক চিকিৎসক তার শরীরেঅ্যানিমিয়া শণাক্ত করলে তরুণ বয়সে তিনি এইখাদ্যাভ্যাস শুরু করেন। তবে সম্প্রতি তিনি পরিমাণকমিয়ে দুটো ডিম খাচ্ছিলেন, সাথে কিছু বিস্কিট।

তার চিকিৎসক কার্লো বাভা বার্তা সংস্থা এএফপিকেবলেন, মিজ মোরানো সবজি বা ফল খুবই কমখেতেন। ২৭ বছর যাবত তিনি মিজ মোরানোরচিকিৎসা করেন।

“আমি যখন প্রথম তাকে দেখি তখন তিনি দিনে তিনটিডিম খেতেন, দুটি কাঁচা এবং বিকেলে একটি অমলেট।আর রাতে খেতেন মুরগির মাংস“।

১১২ বছর বয়সে ইটালির লা স্টাম্পা পত্রিকাকে দেয়াএক সাক্ষাতকারে তিনি বলেছিলেন, বাধ্য হয়েই তাকেবিয়ে করতে হয়েছিল।

“সে আমাকে বলেছিল, আমাকে বিয়ে কর নাহলেতোমাকে মেরে ফেলবো“।

শেষপর্যন্ত তিনি আর সহ্য করতে পারেননি এবং ১৯৩৮সালে স্বামীর কাছ থেকে পৃথক হয়ে যান। যদিও তারাবিবাহবিচ্ছেদ করেননি এবং ১৯৭৮ সালে তার স্বামীমারা যান।

মিজ মোরানো ৭৫ বছর বয়স পর্যন্ত কাজ করে গেছেনএবং আর কখনো বিয়ে না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন।

“কারো আধিপত্য আমি মেনে নিতে চাইনি” নিউ ইয়র্কটাইমসকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে তিনি বলেন।

মাত্র কয়েক বছর আগে তার দেখভালের জন্যপূর্ণকালীন একজন সাহায্যকারী নেন তিনি। গত ২০বছর যাবত তিনি তার দুই কক্ষের ছোট অ্যাপার্টমেন্টছেড়ে বেরও হননি।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক জেরন্টোলজি রিসার্চ গ্রুপের তথ্যঅনুযায়ী, বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক মানুষ এখনজ্যামাইকার ভায়োলেট ব্রাউন, যার জন্ম ১৯০০ সালের১০ই মার্চ।-বিবিসি


শেয়ার করুন:

রিপ্লাই/মন্তব্য করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন
এখানে আপনার নাম লিখুন