নিজস্ব প্রতিবেদন :

বিধিনিষেধ শিথিল করায় অন্যান্য পরিবহনের মতে ট্রেনেও ঈদযাত্রা শুরু হয়েছে। তবে ঈদযাত্রায় অন্যান্য সময়ের মতো যাত্রীদের হুড়োহুড়ি নেই কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে।

শনিবার (১৭ জুলাই) সকাল থেকে কমলাপুর রেলস্টেশন ঘুরে এ চিত্র দেখা গেছে।
করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলাচল করছে ট্রেন। শনিবার সকাল ৯টা থেকে ১০টা পর্যন্ত কমলাপুর স্টেশনে যাত্রী ও কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সব ট্রেনই সময়মতো প্রবেশ এবং স্টেশন ত্যাগ করেছে।

শনিবার সকালে কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে গিয়ে দেখা গেছে, টিকিট চেক করে যাত্রীদের স্টেশনে প্রবেশ করানো হচ্ছে। সঙ্গে হ্যান্ড মাইকে স্বাস্থ্যবিধি মানার জন্য যাত্রীদের অনুরোধ জানানো হচ্ছে। পুরো স্টেশন জুড়ে ছড়িয়ে আছেন রোবার স্কাউটের সদস্যরা। কারো মুখে মাস্ক না থাকলে মাস্ক পরার অনুরোধ জানাচ্ছিলেন তারা। স্বাস্থ্যবিধি মানা সংক্রান্ত বিভিন্ন স্লোগানের ফেস্টুনও দেখা গেছে তাদের হাতে। যাত্রী প্রবেশ মুখেই রাখা আছে হ্যান্ড স্যানিটাইজার।

সকাল পৌঁনে ১০টার দিকে স্টেশনে থাকা একতা এক্সপ্রেসে দেখা গেছে, সেভাবে যাত্রীদের ভিড় নেই। যাত্রীরা এক সিট ফাঁকা রেখে বসেছেন।

তবে অনেকে আন্তঃনগর ট্রেনে যাতায়ায়াতের জন্য অনলাইনে টিকিট পাচ্ছেন না। আর কমিউটার ট্রেনে স্বাস্থ্যবিধিও সেভাবে মানা হচ্ছে না। গাদাগাড়ি করে ভ্রমণ করতে হচ্ছে বলে জানিয়েছেন যাত্রীরা।

এ ছাড়া কমলাপুর স্টেশনে বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় পরিচালিত ট্রেনের টিকিট কাউন্টারে যাত্রীদের ভিড় দেখা গেছে।

কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন ম্যানেজার মোহাম্মদ মাসুদ সারওয়ার বলেন, ঈদকে সামনে রেখে নিরাপদ রেল ভ্রমণ উপহার দিতে আমরা পদক্ষেপ নিয়েছি। স্বাস্থ্যবিধি মানার নির্দেশনা রয়েছে মন্ত্রণালয়ের। আমরা সেটা মানছি। মানুষকে আমরা স্বাস্থ্যবিধি মানাতে পেরেছি।

রিপ্লাই দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here